প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ সদস্যের দৃষ্টি আকর্ষণ করে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন করেন-আওয়ামীলীগ নেতা

 

বড়ুরা  প্রতিনিধি।।

কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার ঝলম ইউনিয়ন এর ঢেউয়াতলী গ্রামের কৃতি সন্তান আওয়ামী লীগ নেতা ছফিউল্লাহ খন্দকার
মঙ্গলবার দুপুরে ঢেউয়াতলী খন্দকার মার্কেটে স্থানীয় প্রভাবশালী ভূমিদস্যুদের থেকে সম্পত্তি উদ্ধার করতে প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ সদস্যদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে সংবাদ সম্মেলন করেন।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন
কোব্বাদ খাঁ ও চৌধুরীর পরিবারের সদস্যরা পাকিস্তান আমল থেকে
কালাক্ষা পাঠান খাঁর বংশধদরদের সম্পত্তি নামে-বেনামে দখল করে আসছে
দখলদাররা কালাক্ষা পাঠান এর বংশধরদের মামলা হামলা খুন গুম নির্যাতন করে আসছে তাদের উদ্দেশ্য একটাই কালাক্ষা পাঠানের বংশ নির্মুল করতে হবে।

তারা হলো স্বাধীনতাবিরোধী জামায়াত-বিএনপির আমলে তারা নিরীহ মানুষের উপর অত্যাচার নির্যাতন করেছে অথচ তারাই বর্তমান সরকারের আমলে বিভিন্ন
দপ্তরে উচ্চ পর্যায়ে কর্মরত আছে
আমার দাবী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও বরুড়া উপজেলার মাননীয় সংসদ সদস্য এই বিষয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার অনুরোধ জানাচ্ছি।

এ ছাড়াও
রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়ে আমার সপ্তম শ্রেণীর পড়ুয়া ছেলেকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছে এছাড়াও আমার ভাই কোন রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িত নয় তাকে দফায় দফায় মামলার আসামি করা হয়েছে, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমি চেয়ারম্যান পদে একজন প্রার্থী ছিলাম আমার জনপ্রিয়তাও কমছিলনা কিন্তু আমি বাংলাদেশে আওয়ামী লীগের
সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াই , নির্বাচনের সময় থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত আমার নেতাকর্মীদের কে বিভিন্ন ভাবে বর্তমান চেয়ারম্যান এবং তার অনুসারীরা
মামলা হামলা দিয়ে হয়রানি করে আসছে।

সংবাদ সম্মেলনে,
ঝলম ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি মোহাম্মদ ছামিরূল ইসলাম বলেন আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে আমাদের দল ক্ষমতায় থাকার পরেও মিথ্যা মামলার আসামি হতে হচ্ছে তাই
জারা এই ধরনের মিথ্যা মামলা দিয়ে আমাদের হয়রানি করছে তাদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা হোক

আরো পড়ুনঃ